News Details

Industrial Tour 2019

The 6th & 7th semester's students of the Department of Business Administration of Northern University of Business and Technology Khulna went to an industrial tour at Khulna Shipyard Ltd & Seven Rings Ltd on April 2, 2019...

.....

More News

এনইউবিটি খুলনাতে ফল সেমিস্টার-২০২৪ এর এ্যাডমিশন ফেয়ার

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেজ এন্ড টেকনোলজি  খুলনাতে  ফল -২০২৪ সেমিস্টারের এ্যাডমিশন ফেয়ার শুরু হয়েছে। সোমবার ২০ মে থেকে ১০ জুন সোমবার, ২০২৪ পর্যন্ত এ ফেয়ার চলবে। সরকারি ছুটির দিনসহ সপ্তাহে ৭দিন এ ফেয়ার চলবে পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি শাখা খোলা থাকবে ও একই সাথে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম চলবে। আজ এ্যাডমিশন ফেয়ার উদ্বোধন করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এটি.এম জহিরউদ্দিন, এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, রেজিস্ট্রার ড. মো: শাহ আলম সহ বিভিন্ন বিভাগের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ও কর্মকর্তাবৃন্দ। ফেয়ার চলাকালীন সময় টিউশনফির উপর অতিরিক্ত ১০% ছাড় সহ শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন অফার থাকবে। উল্লেখ্য এনইউবিটি খুলনা এইচ.এস.সি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের রেজাল্ট এর উপর মেধাবী শিক্ষার্থীদের ৭০% পর্যন্ত ছাড় দিয়ে থাকে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বি.বি.এ, ইংরেজী, সি.এস.ই, ই.ই.ই, সিভিল, আর্কিটেকচার, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, অর্থনীতি ও বাংলা বিষয়ে অর্নাস কোর্স চালু আছে। এছাড়া স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এম.বি.এ (রেগুলার ও এক্সিকিউটিভ), এম.এ (ইংরেজী) ও এম.এস.এস (অর্থনীতি) কোর্স চালু আছে। ছবির ক্যাপশন - নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেজ এন্ড টেকনোলজি খুলনাতে ফল-২০২৪ সেমিস্টারের এ্যাডমিশন ফেয়ার শুরু

নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি খুলনায় আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনায় (এনইউবিটিকে) আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে দুই দিনব্যাপী এ আয়োজনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নর্দান এডুকেশন গ্ৰুপের চেয়ারম্যান ও এনইউবিটিকে এর প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ।

রোববার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে একক ও দলীয় নাচের মাধ্যমে আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের (ফল-২০২৩ ও স্প্রিং-২০২৪ সেমিস্টার) নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়। 

নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ বলেন, “দক্ষিণাঞ্চলের উচ্চশিক্ষায় নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনা বড় অবদান রাখছে। এটিকে আরো বাড়াতে স্থায়ী ক্যাম্পাসের কার্যক্রম চলমান। স্থায়ী ক্যাম্পাসে পাঠদান শুরু হলে এই বিশ্ববিদ্যালয় দক্ষিণাঞ্চল তথা সারা বাংলাদেশের শিক্ষায় আরো ভ‚মিকা রাখবে। যেহেতু বর্তমানে শুধু ক্লাসের পড়াই শেষ নয়। আমাদের এখন আনন্দের মাধ্যমে পড়াশুনা করতে হবে। সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় নিয়মিতই আয়োজন করছে এমন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা।”

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনার রেজিস্ট্রার ড. মো. শাহ আলমের সভাপতিত্বে নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এটিএম জহিরউদ্দিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর জালাল উদ্দিন আহমেদ, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. আশিকুদ্দিন মো. মারুফ, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের এডভাইজরি ডিন মো. রবিউল ইসলাম, বিশিষ্ট সংগঠক ও সমাজসেবক আজগর আলী বিশ্বাস তারা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি শেখ তুহিনুল ইসলাম তুহিন ও শেখ হাসান ইফতেখার চালু।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দুপুর আড়াইটায় আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীতের প্রতিযোগিতা শুরু হয়। পরে বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠানের সমাপনী ও বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করা হয়। দুইদিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতায় প্রথম দিনে ইংরেজি কবিতা আবৃত্তিতে প্রথম কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের ফাতেমা আকতার ইলমা, যৌথভাবে দ্বিতীয় হয় সিএসই বিভাগের আনিকা উলফাত ও ইংরেজি বিভাগের শিরমাইন আক্তার রিয়া, এবং তৃতীয় হয় ইংরেজি বিভাগের নাসিম আহমেদ। বাংলা কবিতা আবৃত্তিতে যৌথভাবে বিজয়ী হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের জান্নাতুল ফেরদৌস মিতু ও সিএসই বিভাগের আনিকা উলফাত, দ্বিতীয় হয় সিএসই বিভাগের ফাতেমা আক্তার ইলমা, এবং তৃতীয় হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের নিপা ঢালী, সঙ্গীত ক্যাটাগির-১ (দেশাত্মবোধক, ফোক, রবীন্দ্র ও নজরুল সঙ্গীত) এ প্রথম হয় ইলেক্ট্রিকাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সানজিদা হক সিনথিয়া, দ্বিতীয় হয় আইন বিভাগের মুস্তাফা ফাহিম শুভ, এবং যৌথভাবে তৃতীয় হয় সিএসই বিভাগের সরদার রাকিবুল ইসলাম এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সাজরিল আকতার সাকিন। 

দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত একক নৃত্য ক্যাটাগরিরে বিজয়ী হয় ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের তিথী হালদার, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয় ইংরেজি বিভাগের শাওন বাছার ও শারদীয়া চক্রবর্তী। এরপর দলীয় নৃত্য ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ, দ্বিতীয় হয় ইংরেজি বিভাগ ও তৃতীয় হয় স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। সর্বশেষ অনুষ্ঠিত সঙ্গীত ক্যাটাগরি-২ (আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীত) এ বিজয়ী হয় স্থাপত্য বিভাগের মাহমুদুর রেজোয়ান, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হয় সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেখ ফাহিদুজ্জামান অমি ও তাসনিয়া ইসলাম। 

শিক্ষার্থীদের মধ্যে সহশিক্ষা কার্যক্রমকে গতিশীল করতে এবং দেশিয় সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা বৃদ্ধিতে এমন আয়োজন বড় ভ‚মিকা রাখবে বলে আশা রাখেন আয়োজকরা।নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি খুলনায় আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠিত
নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনায় (এনইউবিটিকে) আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে দুই দিনব্যাপী এ আয়োজনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নর্দান এডুকেশন গ্ৰুপের চেয়ারম্যান ও এনইউবিটিকে এর প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ।

রোববার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে একক ও দলীয় নাচের মাধ্যমে আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের (ফল-২০২৩ ও স্প্রিং-২০২৪ সেমিস্টার) নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়। 

নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ বলেন, “দক্ষিণাঞ্চলের উচ্চশিক্ষায় নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনা বড় অবদান রাখছে। এটিকে আরো বাড়াতে স্থায়ী ক্যাম্পাসের কার্যক্রম চলমান। স্থায়ী ক্যাম্পাসে পাঠদান শুরু হলে এই বিশ্ববিদ্যালয় দক্ষিণাঞ্চল তথা সারা বাংলাদেশের শিক্ষায় আরো ভ‚মিকা রাখবে। যেহেতু বর্তমানে শুধু ক্লাসের পড়াই শেষ নয়। আমাদের এখন আনন্দের মাধ্যমে পড়াশুনা করতে হবে। সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় নিয়মিতই আয়োজন করছে এমন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা।”

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনার রেজিস্ট্রার ড. মো. শাহ আলমের সভাপতিত্বে নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এটিএম জহিরউদ্দিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর জালাল উদ্দিন আহমেদ, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. আশিকুদ্দিন মো. মারুফ, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের এডভাইজরি ডিন মো. রবিউল ইসলাম, বিশিষ্ট সংগঠক ও সমাজসেবক আজগর আলী বিশ্বাস তারা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি শেখ তুহিনুল ইসলাম তুহিন ও শেখ হাসান ইফতেখার চালু।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দুপুর আড়াইটায় আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীতের প্রতিযোগিতা শুরু হয়। পরে বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠানের সমাপনী ও বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করা হয়। দুইদিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতায় প্রথম দিনে ইংরেজি কবিতা আবৃত্তিতে প্রথম কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের ফাতেমা আকতার ইলমা, যৌথভাবে দ্বিতীয় হয় সিএসই বিভাগের আনিকা উলফাত ও ইংরেজি বিভাগের শিরমাইন আক্তার রিয়া, এবং তৃতীয় হয় ইংরেজি বিভাগের নাসিম আহমেদ। বাংলা কবিতা আবৃত্তিতে যৌথভাবে বিজয়ী হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের জান্নাতুল ফেরদৌস মিতু ও সিএসই বিভাগের আনিকা উলফাত, দ্বিতীয় হয় সিএসই বিভাগের ফাতেমা আক্তার ইলমা, এবং তৃতীয় হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের নিপা ঢালী, সঙ্গীত ক্যাটাগির-১ (দেশাত্মবোধক, ফোক, রবীন্দ্র ও নজরুল সঙ্গীত) এ প্রথম হয় ইলেক্ট্রিকাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সানজিদা হক সিনথিয়া, দ্বিতীয় হয় আইন বিভাগের মুস্তাফা ফাহিম শুভ, এবং যৌথভাবে তৃতীয় হয় সিএসই বিভাগের সরদার রাকিবুল ইসলাম এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সাজরিল আকতার সাকিন। 

দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত একক নৃত্য ক্যাটাগরিরে বিজয়ী হয় ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের তিথী হালদার, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয় ইংরেজি বিভাগের শাওন বাছার ও শারদীয়া চক্রবর্তী। এরপর দলীয় নৃত্য ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হয় সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ, দ্বিতীয় হয় ইংরেজি বিভাগ ও তৃতীয় হয় স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। সর্বশেষ অনুষ্ঠিত সঙ্গীত ক্যাটাগরি-২ (আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীত) এ বিজয়ী হয় স্থাপত্য বিভাগের মাহমুদুর রেজোয়ান, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হয় সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেখ ফাহিদুজ্জামান অমি ও তাসনিয়া ইসলাম। 

শিক্ষার্থীদের মধ্যে সহশিক্ষা কার্যক্রমকে গতিশীল করতে এবং দেশিয় সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা বৃদ্ধিতে এমন আয়োজন বড় ভুমিকা রাখবে বলে আশা রাখেন আয়োজকরা।

নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি খুলনায় দুই দিনব্যাপী আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা শুরু

শিক্ষার্থীদের মধ্যে সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনায় (এনইউবিটিকে) দুই দিনব্যাপী আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় শিববাড়িস্থ বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসের অডিটোরিয়ামে এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এটিএম জহিরউদ্দিন বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার পাশাপাশি সুস্থ সংস্কৃতির চর্চা ও সহশিক্ষা কার্যক্রমকে গতিশীল করার লক্ষ্যে এই আয়োজন। শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় তাদের কৃতিত্বের স্বাক্ষর যেমন রাখবে তেমনই দেশের সংস্কৃতিতেও ভ‚মিকা রাখবে বলে আশা করছি।”

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন অনুষদের ডিন প্রফেসর জালাল উদ্দিন, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. আশিকুদ্দিন মো. মারুফ, সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের এডভাইজরি ডিন প্রফেসর মো. রবিউল ইসলাম, রেজিস্ট্রার ড. মো. শাহ আলম, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং শিক্ষকবৃন্দ। 

দুই দিনব্যাপী আয়োজনে বাংলা ও ইংরেজি ক্যাটাগরিতে কবিতা আবৃত্তি, দেশাত্মবোধক, ফোক, রবীন্দ্র সঙ্গীত, নজরুল সঙ্গীত, আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীত ক্যাটাগরিতে গান, এবং একক ও দলীয় ক্যাটাগরিতে নাচের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দিতে কবিতা আবৃত্তি, এবং দেশাত্মবোধক, ফোক, রবীন্দ্র সঙ্গীত, নজরুল সঙ্গীত ক্যাটাগরির গানের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় দিন রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ ও আন্ত:বিভাগ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে। সমাপনী দিনে একক ও দলীয় নাচ, এবং আধুনিক ও ব্যান্ড সঙ্গীত-এর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। 

দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন নর্দার্ন এডুকেশন গ্ৰুপের চেয়ারম্যান ও নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনার প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ।

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনাতে “ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯” অধিকতর প্রচারের মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সেমিনার

জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের আয়োজনে এবং নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনা এর সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিববাড়িস্থ অস্থায়ী ক্যাম্পাসের সম্মেলন কক্ষে “ভোক্তা-অধিকার  সংরক্ষণ আইন ২০০৯” অধিকতর প্রচারের মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেমিনারের শুরুতেই জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ ওয়ালিদ বিন হাবিব উপস্থিত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীবৃন্দের সামনে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন কি, এই আইনের উদ্দেশ্য এবং বাস্তবায়নের দায়িত্ব; এই সকল বিষয় ডিজিটালি উপস্থাপন করেন। উপস্থিত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থী বৃন্দের ভোক্তা অধিকার সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন সেমিনারের প্রধান আলোচক জনাব মোহাম্মদ সেলিম, উপ-পরিচালক জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক প্রফেসর আব্দুল মান্নান বলেন, পণ্যের উৎপাদনকারী এবং ভোক্তা এই দুই শ্রেণীই প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হচ্ছে কিন্তু লাভবান হচ্ছে মধ্যসত্বভোগীরা, এ ব্যাপারে তিনি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।   সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর জালালউদ্দিন আহমেদ, ডীন, স্কুল অব বিজনেস, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি। সেমিনারের সভাপতিত্ব করেন প্রফেসর ডক্টর মোহাম্মদ শাহ আলম, রেজিস্ট্রার, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি খুলনা। সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ডক্টর মোহাম্মদ শাহ আলম জনগণের কল্যাণের লক্ষ্যে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন প্রনয়ন করায় সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এ সপ্তাহ ব্যাপী “বিজনেজ ফেস্টিভাল” এর উদ্ভোধন

ভিশন-২০৪১ এবং স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের প্রত্যয়ে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের উদ্যোগে সপ্তাহ ব্যাপী “বিজনেস ফেস্টিভাল”এর আয়োজন করে। উক্ত বিজনেস ফেস্টিভাল-এর উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিল্প মন্ত্রী জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য জনাব খসরু চৌধুরী, নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মুহাম্মদ সামসুল আরেফিন।

প্রধান অতিথি জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ, এমপি ভিশন-২০৪১ এবং স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিজনেস কেইস এবং বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান এবং বলেন, জাতি এখন স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছে। সকলের সম্মলিত প্রচেষ্টায় এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা সম্ভব। তিনি শিক্ষার্থীদের তাদের অভিষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যেতে আহŸান জানান।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ একটি নতুন যুগের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে, যেখানে তরুণদের স্বপ্ন জাতির আকাঙ্খার সাথে মিশে আছে। গেøাবালাইজেশনের এই সময়ে আমাদের এমন উদ্যোক্তা দরকার যারা চাকরি তৈরি করবে, সমস্যার সমাধান করবে এবং জাতিকে বিকশিত করার জন্য নিজেকে সংজ্ঞায়িত করবে। বিল গেটস, ইলন মাস্ক, মার্ক জুকারবার্গসহ অগণিত উদ্যোক্তাগণ তাদের নিজস্ব প্রচেষ্টায় বিশ্বে নিজেদের অবস্থান তৈরি করতে পেরেছে। উন্নয়নের শিখরে পৌঁছানোর জন্য অন্যদের অনুলিপি না করে নিজস্ব পথ তৈরি করতে হবে। আর যারা স্বপ্ন বাস্তবায়নে কঠোর পরিশ্রম করবে তারাই সাফল্য অর্জন করতে পারবে। 

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য, বোর্ড অব ট্রাস্টের সম্মনিত সদস্যবৃন্দ, রেজিস্ট্রার বিভিন্ অনুষদের ডীন, বিভাগীয় প্রধানগণ, শিক্ষক-কর্মকর্তা ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সপ্তাহব্যাপী “বিজনেস ফেস্টিভাল” অনুষ্ঠানে সারাদেশ থেকে ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস কেইস এবং ৩৫টি বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন।

Accreditation And Collaboration

  • Northern University of business and technology with American Corner
  • Northern University of business and technology with University of Hertfordshire
  • Northern University of business and technology with Pearson
  • Northern University of business and technology with BTEC
  • Northern University of business and technology with Ohio Northern University
  • Northern University of business and technology with Nantong University
  • Northern University of business and technology with Internation Islamic University
  • Northern University of business and technology with UPM
  • Northern University of business and technology with Perlis
  • Northern University of business and technology with Visva